জাফলংয়ে শীর্ষ চাঁদাবাজ: নাজিম,জয়দুল, নুরুল

প্রকাশিত: ১০:৪৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০

জাফলংয়ে শীর্ষ চাঁদাবাজ: নাজিম,জয়দুল, নুরুল

ডেস্ক রিপোর্ট-

পাথররাজ্য জাফলংয়ে চাঁদাবাজি যেন নিত্যদিনের অঘোষিত নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে। একশ্রেণির অসৎ চাঁদাবাজ বাহিনীর নেতৃত্ব হরহামেশায় চলছে চাঁদাবাজি এবং ওদের রয়েছে চাঁদাবাজদের বিভিন্ন চক্র।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়,জাফলংয়ে দিনরাত চাঁদা আদায়ের দায়িত্ব বন্টন করে দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন বাহিনীর হাতে। চাঁদাবাজদের হাতে জিম্মি হয়ে থাকছে জাফলংয়ের লাখো মানুষ। আর এই চাঁদাবাজ বাহিনীর অন্যতম হচ্ছেন নাজিম, জয়দুল ও নুরুল।

স্থানীয়দের অভিযোগ নাজিম উদ্দিন মন্ত্রীর কাছের মানুষ ও স্থানীয় যুবলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন পিয়াইন নদীতে চাঁদাবাজির রমরমা ব্যবসা। জয়দুল বিরোধী দলের রাজনীতির সাথে থাকলেও রয়েছে তার প্রভাব ও আধিপত্য নিয়ে সক্রিয়।

স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, জাফলং, নয়াবস্তি, কান্দিবস্তি, জুমপাড়, বল্লাঘাট, জিরো পয়েন্ট সিমান্ত এলাকায় রাতের অন্ধকারে প্রশাসনের অন্তরালে বার্কি নৌকা শ্রমিকদের কাছে থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে মাসে কয়েক লক্ষ টাকা । স্থানীয় শ্রমিকদের অভিযোগের শেষ নেই তাদের উপর। জাফলং পিয়াইন নদী এলাকার শ্রমিকদের কাছে থেকে নাজিম উদ্দিন জাফলং ট্যুরিজম ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পরিচয় দিয়ে চাঁদা আদায় করেন।

শ্রমিকরা বলেন, আমরা চাঁদা না দিতে চাইলে চাঁদাবাজরা প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অনুমতি নিয়ে এসেছি তোমরা আমাদের কে প্রতি নৌকা পাথর ১৫০০ টাকা, বালু ১০০ টাকা চাঁদা দিতে হবে। নয় ত আরো নৌকা নিয়ে আসতে পারবানা। নৌকা বেঙ্গে ফেলবো। মামলা দিবো। এমন ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজি করে তারা।

জাফলংযের সাধারণ শ্রমিকসহ পাথর -বালু ব্যবসায়ি শ্রমিকরা মাননীয় প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী সহ প্রসাশনের দৃষ্টিগোচর ও হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ