সিলেট জেলা প্রসাশকের সিদ্ধান্তে বিলম্ব” সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব “নি:স্ব হচ্ছে টেন্ডার দাতারা

প্রকাশিত: ৬:৩৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১, ২০২০

সিলেট জেলা প্রসাশকের সিদ্ধান্তে বিলম্ব” সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব “নি:স্ব হচ্ছে টেন্ডার দাতারা

ডেস্ক রিপোর্ট-
সিলেটের কানাইনঘাট উপজেলার লোভা ছড়া পাথর কোয়ারির লোভা নদীর দু’পারে স্তুপ আকারে জমা করা পাথর দীর্ঘদিন দরে নিলামের সিদ্ধান্তটি অপেক্ষমান থাকার কারণে সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব এবং টেন্ডারকৃত পাথরের পরিমান কমে যাচ্ছে। অন্য দিকে অবৈধবাভে চোরাই পথে নিলামকৃত পাথর প্রতি দিন-রাত হাজার হাজার ঘন ফুট পাথর কতিপয় অসাধু ব্যাক্তি বর্গ কানাইঘাট বাসস্টেন এলাকা, লোভারমুখ বাজার এলাকা, আন্দুরমুখ বাজার এলাকা ও জকিগঞ্জ উপজেলার আটগ্রাম বাজাররের খেয়াঘাট সহ বিভিন্ন স্থানে নৌকা যোগে পাথর এনে স্তুপ আকারে জমা করে রাখে এবং সুযোগ সন্ধানে ট্রাক্টর, ট্রাক যোগে দেশের বিভিন্ন স্থানে সর্বরাহ করে আবার কিছুস্থানে স্থানিয় ব্যাক্তি বর্গ মাটি চাপা দিয়ে পাথর ডেকে রাখে এবং নদীতে ফেলে দেয়ার এমন চিত্র সরজমিন পরিদর্শনে দেখা যায়।

জানা যায়, চলতি বছরের জুলাই মাসে পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট কর্তৃক লোভা ছড়া পাথর কোয়ারির উত্তোলন কৃত পাথর জব্ধ করা হয়। পরবর্তিতে ১২ই আগষ্ঠ ২০২০ইং তারিখে পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট কর্তৃক ৩য় নিলাম বিজ্ঞপ্তিতে সর্বোচ্ছ দরদাতা হিসাবে বিবেচিত হন গোয়াইনঘাটের ডৌবাড়ী ইউনিয়নের নূর উদ্দিনের ছেলে নিজাম উদ্দিন। এর পর সিলেট পরিবেশ অদিধপ্তর এর পরিচালক এর অনুকুলে পে-অর্ডার বাবত ৬৭ লক্ষ টাকা জমা দেন তিনি। এর পর থেকে অদ্যাবধী সিলেট জেলা প্রশাসক সহ সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরে সরজমিন দখল ও নিলামের কার্যাদেশ এবং টাকার জমা নেয়ার জন্য অবেদন নিবেদন করে কোন প্রতিকার পাননি বলে অভিাযোগ করেন এম নিজাম উদ্দিন। সর্বশেষ ন্যায়বিচারের জন্য মহামান্য হাই কোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করেন এম নিজাম উদ্দিন। যার নাম্বার ৬৪৭৬/২০২০ ।

উক্ত নিলাম গ্রহিতা এম নিজাম উদ্দিন বলেন, চলমান নিলাম বিজ্ঞপ্তির কার্যক্রমে সিলেট জেলা প্রশাসকের সিদ্ধান্তে বিলম্বের কারণে এক দিকে টেন্ডারকৃত পাথরের পরিমান কমে যাচ্ছে অন্য দিকে সরকার বিপুল পরিমান রাজস্ব হারাচ্ছে। আমি নিলাম গ্রহিতা হিসাবে প্রচুর পরিমান আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছি। সরকারের রাজস্ব হারানো সহ আমার আর্থিক ক্ষতির দায়ভার অবশ্যই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উপর বর্তাবে। তিনি আরো বলেন,আমার দাখিল কৃত পে-অর্ডার ক্ষতিপূর্ণসহ অল্ল্যেখিত পয়েন্টগুলোর যে সকল স্থানে স্তুপকরে পাথর জমা রাখা হয়েছে তাহা জব্ধকরে এবং কোয়ারি এলাকা হতে কোন পাথর যেনো অপসারণ না হয় এবং নিলাম বিজ্ঞপ্তিতে আমার অনুকুলে কার্যাদেশ ও সরজমিন দখল প্রদান করার জরুরী ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করার অনুরোধ করেন তিনি।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ