কোয়ারি খোলে দেওয়ার দাবীতে সমাবেশ” কঠোর আন্দোলনের ডাক

প্রকাশিত: ৬:০৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৯, ২০২০

কোয়ারি খোলে দেওয়ার দাবীতে সমাবেশ” কঠোর আন্দোলনের ডাক

জৈন্তাপুর প্রতিনিধি ::

জৈন্তাপুরে ঐতিহাসিক বটতলায় সিলেটের সকল পাথর কোয়ারী খুলে দেওয়ার দাবিতে মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ডাকে ৪৮ ঘণ্টার ধর্মঘট সমর্থন জানিয়ে বৃহত্তর জৈন্তার ১৭ পরগনার একাত্মতা প্রকাশ করে এক বিশাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন জৈন্তাপুর ট্রাক চালক উপ কমিটির আঞ্চলিক যুগ্ন আহবায়ক সুনীল দেবনাত।
এতে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল আহমেদ, দুপুর ২ ঘটিকার সময় ঐতিহাসিক বট তলায় অনুষ্টিত সমাবেশে জৈন্তাপুর ট্রাক চালক উপকমিটির যুগ্ন আহবায়ক মোঃ সেলিম আহমদ ও সাংবাদিক সুহেল আহমদের যৌথ পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন ট্রাক মালিক গ্রুপের বিভাগীয় কমিটির সভাপতি গোলাম হাদি ছয়ফুল, ট্রাক-পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন বিভাগীয় কমিটির সভাপতি আবু সরকার, ট্রাক পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও বিভাগীয় কমিটির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আমির উদ্দিন ৪ নং দরবস্ত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাহারুল আলম বাহার, চারিকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফায়েল আহমেদ, তামাবিল কয়লা ও আমদানী গ্রুপের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ইলিয়াস উদ্দিন লিপু, ইউপি সদস্য শওকত আলী, মালিক গ্রুপের সাধারন সম্পাদক ও সাংবাদিক সাব্বির আহমদ, যুবলীগ নেতা কুতুব উদ্দিন, উত্তর-পূর্ব গোয়াইনঘাট আঞ্চলিক উপ কমিটির সভাপতি সমেত আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম সাংগঠনিক সম্পাদক সোহাগ আহমেদ,শ্রমিক নেতা সামছু মিয়া, মনির আহমদ, পাখি মিয়া, বদরুল, সাদ্দাম, মুন্না সতেরো পরগনার মুরব্বি আব্দুল হক, বাবুল মিয়া, মনির উদ্দিন, বদরুল ইসলাম সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে বক্তব্যে বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতার কল্যাণে ও শ্রমিকদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু সিলেটের পাথর কোয়ারির ১০ লক্ষাধিক মালিক-শ্রমিক মানবেতর জীবনযাপন করছেন।
তাই বিষয়টি নজরে নিয়ে অসহায় মালিক-শ্রমিকদের জীবন-জীবিকা রক্ষায় আশ্রয় দেয়ার জন্য অনুরোধ জানান।
এবং এতে ৪৮ ঘণ্টার কর্মবিরতি মধ্যে যদি সিলেটের সকল পাথর কুয়ারি খুলে না দেওয়া হয় তাহলে বৃহত্তর সতেরো পরগনাকে নিয়ে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ