জৈন্তাপুরে সুচনা’র অভিজ্ঞতা বিনিময় ও সমাপনী অনুষ্ঠান

প্রকাশিত: ১২:০৬ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৮, ২০২০

জৈন্তাপুরে সুচনা’র অভিজ্ঞতা বিনিময় ও সমাপনী অনুষ্ঠান

জৈন্তাপুর প্রতিনিধিঃ
সিলেটের জৈন্তাপুরে উপজেলায় সূচনা প্রকল্পের অভিজ্ঞতা বিনিময় ও সমাপনী অনুষ্টান অনুষ্টিত ।
২৭ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ১০ টায় চারিকাটা ইউনিয়ন পরিষদ মিলোনায়েতনে সূচনা প্রকল্পের অভিজ্ঞতা বিনিময় ও সমাপনী অনুষ্টান অনুষ্ঠিত হয়।
সূচনা প্রকল্পের ইউনিয়নের কো- অর্ডিনেটর বিশ^জিৎ কুমার দাস এর পরিচালনায় সভাপতিত্ব করেন জৈন্তাপুর উপজেলার কো- অর্ডিনেটর আবু বকর শিকদার। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চারিকা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহ আলম চৌধুরী তুফায়েল, অন্যানদের মধ্যে উপস্থিত চিলেন সূচনা প্রকল্পের উপজেলা গর্ভন্যান্স এন্ড কমিউনিটি ডেভেলাপমেন্ট অফিসার শামছুন নাহার কনা, ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ও সদস্য বৃন্দ, সুচনা কিশোরী উপকারভোগী দলের সভাপতি এবং এবং জি.পি.ইউ-কে সভাপতি, হেলথ্ ইন্সিপেক্টর ও পরিবার পরিকল্পনা ইন্সিপেক্টর উপস্থিত চিলেন।
এসময় বক্তারা বলেন, সুচনা প্রকল্প গ্রামকে অনেক উন্নতির দিকে নিয়ে গেছেন। ব্যক্তির জীবন মান উন্নয়ন, জলবায়ু পরির্বতন, পুষ্টির চাহিদা পূরনে জনে মনে সচতনতা সৃষ্টির পরামর্শ প্রদান করেন। সূচনা জৈন্তাপুর উপজেলায় বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের অগ্রগতি ও প্রামণ্য চিত্র প্রদর্শন, চিত্র দেখানো হয়। পুষ্টিদলের সভাপতি বলেন গত তিন বছরে সুচনা থেকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও সহযোগীতা পেয়ে আগের থেকে বর্তমানে অনেকটা সফল জীবন যাপন করছেন।
প্রধান অতিথি বক্তব্যে চারিকা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহ আলম চৌধুরী তুফায়েল বলেন- ডিজিটাল বাংলাদেশ বির্নিমানে সুচনা প্রকল্প গ্রামকে অনেক উন্নতির দিকে নিয়ে গেছে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে নিরলস কাজ কওে যাচ্ছে সুচনা। এমনকি সফতার সাথে তিন বছরে যা করেছে তা ধরে রাখলে বাস্তব জীবনে অনেক সফলতা আসবে। এছাড়া তিনি সূচনার সফলতা কামনা করে সূচনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে উপকারভোগী ও প্রশিক্ষণার্থীর মধ্যে ধন্যবাদ পত্র তুলে দেন।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ