জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের উদ্যেগে শিখন স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাঝে কম্বল বিতরণ

প্রকাশিত: ৮:৩১ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২২, ২০২১

জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের উদ্যেগে শিখন স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাঝে কম্বল বিতরণ

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলামের বিশেষ উদ্যেগে খাদিম চা বাগানে শিখন স্কুলের১০৬ জনদরিদ্র শিক্ষার্থীদের মধ্যে কম্বল বিতরণ করেন।
গত ২০ জানুয়ারী বুধবার খাদিম চা বাগানে শিখন স্কুলের ১০৬ জন দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মধ্যে কম্বল বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম।
শিখনপ্রকল্প সেভ দ্য চিলড্রেন এবং জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশনের আয়োজনে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন খাদিম চা বাগানের ম্যানেজার আতিকুর রহমান আতিক সেভ দ্য চিলড্রেন এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার তাহমিনা খানম জলিশ, ডেপুাটম্যানেজার সেতু পাল রাজীব এবং শিখন প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংস্থা জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশনের প্রকল্প সমন্বয়কারী আব্দুর রব, টেকনিক্যাল অফিসার কে এম আলমগীর হোসেন এবং প্রকল্পের অন্যান্য কর্মীগণসহ শিখন স্কুলের শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থীগণ।


ডেপুটি ম্যানেজার সেতু পাল রাজীব এর সঞ্চালনায় শুভেচ্ছা বক্তব্যে তাহমিনা খানম জলিশ শিখন প্রকল্পের সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মধ্যে কম্বল বিতরণের জন্য জেলা প্রশাসক ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জানান। জেলা প্রশাসক তার বক্তব্যে বলেন, সেভ দ্য চিলড্রেন শিখন প্রকল্পের মাধ্যমে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের প্রাথমিক শিক্ষার আওতায় এনেছে। চা বাগান এলাকায় এক সময় শিক্ষার প্রতি মানুষের তেমন আগ্রহ ছিলনা। তাদের ধারণা ছিল বাগানে বসবাস করে পড়া-লেখা করা যায় না। এখন সময় পরিবর্তন হয়েছে। সরকারের বিভিন্ন উদ্যেগের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থার উদ্যোগে লোকজন সচেতন হয়েছে শিশুদের স্কুলে পাঠাচ্ছে, ভবিষ্যতে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের পাশে থাকার প্রয়াস ব্যক্ত করে তিনি বক্তব্য শেষ করেন।
উল্লেখ্য যে, শেভরন এর অর্থায়নে সেভ দ্য চিলড্রেন এর সহায়তায় জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশন সিলেট সদর, নবীগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গল উপজেলায় পিছিয়ে পড়া সুবিধা বঞ্চিত এলাকায় দরিদ্র শিশুদের মৌলিক প্রাথমিক শিক্ষা অর্জনে “শিখনপ্রকল্পের” মাধ্যমে সহায়তা করে আসছে। বর্তমানে উক্ত উপজেলা গুলোতে ৬০টি কেন্দ্রেরে মাধ্যমে ১৮০৪ জন শিশু তৃতীয় শ্রেণিতে পড়া-লেখা করছে।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ